সন্তানহারা মা থেকে ভারতের প্রথম মহিলা ডাক্তার

আজ 31শে মার্চ ভারতের প্রথম মহিলা ডাক্তার আনন্দিবাঈ জোশীর জন্মদিন। তাই আজকের দিনে তার প্রতি বিশেষ শ্রদ্ধার্ঘ জানাতে uraaVi ক- এর এক বিশেষ প্রতিবেদন। আসুন আজ আমরা একটু জেনে নিই ওনার সম্বন্ধে।

1865 সালের 31শে মার্চ আনন্দিবাঈ গোপালরাও জোশী জন্মগ্রহন করেন তৎকালীন ব্রিটীশ ইন্ডিয়ার থানে শহরে। অর্থনৈতিক সমস্যা থাকার দরুন মাত্র 9 বছর বয়সে তার বিবাহ হয় গোপালরাও জোশীর সাথে।তার থেকে প্রায় কুড়ি বছরের বড় গোপালরাও বিবাহের পর তার নাম পাল্টে যমুনা থেকে আনন্দী রাখে। মাত্র চোদ্দ বছর বয়সে আনন্দিবাঈ প্রথম গর্ভবতী হয়ে পড়েন এবং একটি পুত্রসন্তান জন্ম দেন। কিন্তু পুষ্টি ও অনুন্নত চিকিৎসী ব্যাবস্থার দরুন মাত্র দশদিন বাদেই তার পুত্রসন্তান মারা যায়।

anandi gopal joshi এর ছবির ফলাফল
জীবনের মুহুর্তেই আনন্দিবাঈ নিজেকে নতুন ভাবে মেলে ধরেন এবং ডাক্তারী নিয়ে পড়াশোনা করার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন। এবং গোপালরাও এর মতো একজন মুক্তচিন্তার মানুষকে সাথী হিসাবে পেয়ে সেই সময় তার এই স্বপ্ন বাস্তবায়িত করতে পেরেছিলেন। স্ত্রীর স্বপ্ন পুরনের জন্য গোপালরাও 1880 সালে রয়্যাল উইল্ডার নামক এক আমেরিকান মিশনারীতে তার স্ত্রীর চিকিৎসা নিয়ে পড়ার ইচ্ছার কথা জানান। পড়ে এই মিশনারীর দেওয়া একটি বিজ্ঞাপনে তার চিকিৎসা বিজ্ঞান নিয়ে পড়ার কথা জেনে এবং তার স্বামীর উৎসাহ দেখে থিওডিসিয়া কার্পেন্টার নামে এক মহিলা তাদের সাহায্য আগ্রহী হন।


তিনি যখন কলকাতায় ছিলেন তখন ভীষন রকম অসুস্থ হয়ে পড়েন পরে এই মহিলাই আমেরিকা থেকে তার চিকিৎসার ব্যাবস্থা করেন। 1883 সালের জুন মাসে তিনি নিউ ইয়র্ক-এ পৌছান এবং মেডিক্যাল কলেজ অফ পেনসিলভ্যানিয়া-তে পড়াশোনা শুরু করেন উনিশ বছর বয়সে। আমেরিকার অত্যন্ত ঠান্ডা আবহাওয়ায় তিনি প্রায়ই অসুস্থ হয়ে পড়লেও 1885 সালের 11-ই মার্চ তিনি সফলতার সাথে সমস্ত পরীক্ষায় উত্তীর্ন হন।

1886 সালের শেষের দিকে তিনি ভারতে ফিরে আসেন এবং কোলাপুরের অ্যালবার্ট এডওয়ার্ড হসপিটালের মহিলা বিভাগে নিযুক্ত হন। কিন্তু টিউবোরকিউলোসিস্ -এ আক্রান্ত হয়ে 1887 সালের 26-শে ফেব্রুয়ারী মাত্র 22 বছর বয়সেই তিনি পরলোকগমন করেন।

or

Log in with your credentials

Forgot your details?